অার্ন্তজাতিক ডেস্ক :: গোপনে নারীর নগ্ন ভিডিও তুলে ব্ল্যাকমেইল করার অভিযোগে এক তান্ত্রিককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ভারতের উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ থেকে তাকে গ্রেপ্তারের পর তিন দিনের পুলিশি হেফাজনের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। লিটন চক্রবর্তী নামের ওই তান্ত্রিকের বাড়ি রায়গঞ্জের উকিলপাড়া এলাকায়। জানা গেছে, রায়গঞ্জের সুভাষগঞ্জের বাসিন্দা ওই নারী বেশ কিছুদিন ধরেই বিভিন্ন পারিবারিক সমস্যায় ছিলেন। তাকে কেউ উকিলপাড়ার লিটন চক্রবর্তীর সন্ধান দেন। এরপরই ওই নারী পারিবারিক সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে তান্ত্রিক লিটন চক্রবর্তীর কাছে যান। অভিযোগ উঠেছে, ওই নারীর সঙ্গে দেখা হওয়ার পরই তাকে শুদ্ধিকরণের কথা বলেন তান্ত্রিক লিটন। শুদ্ধিকরণের জন্য ওই নারীকে পাশের ঘরে গিয়ে নগ্ন হতে বলেন তিনি। প্রথমে রাজি হননি ওই নারী। পরে ভয় দেখিয়ে ওই নারীর পোশাক খোলেন তান্ত্রিক। এ সময় গোপন সেটি ভিডিও করেন সেই তান্ত্রিক। তারপরই শুরু হয় ওই ভিডিও দেখিয়ে নারীকে ব্ল্যাকমেইল করা। তার সঙ্গে সহবাসের জন্য ওই নারীকে চাপ দিতে থাকেন তান্ত্রিক।

তার কথা শোনা না হলে নারীর নগ্ন ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন লিটন চক্রবর্তী। পরে ওই নারী বাড়িতে সব কথা খুলে বলেন। এই ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার রাতে রায়গঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। গতকাল শুক্রবার সকালে তান্ত্রিক লিটন চক্রবর্তীকে গ্রে্তোর করে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। রায়গঞ্জ জেলা আদালতে তাকে তোলা হলে বিচারক ৩ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন।